সয়াবিন এর পুষ্টিমান

স্বাভাবিকভাবে আমরা সবাই জানি সয়াবিন সম্পর্কে। এটি অনেক উপকারী। আজ আমি একটু বিশদ ভাবে সয়াবিন সম্পর্কে বলবো।

সয়াবিনের বৈজ্ঞানিক নাম: Glycine Max

ইংলিশ নাম: Soya Bean

প্রাচীনকালে ভারতীয় মুণি- ঋষি গন মধু ও সয়াবিন যোগে পুষ্টি সাধনের জন্য উৎকৃষ্ট ও শক্তিশালী খাদ্য রূপে গ্রহণ করতেন।

বর্তমানে সয়াবিনের পুষ্টিগুণ বিবেচনা করে উন্নত দেশসমূহ যেমন: আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, চীন, জাপান, রাশিয়া, কোরিয়া, আফ্রিকা ও ভারতবর্ষে ব্যাপক চাষাবাদ হচ্ছে। সেইসাথে বাংলাদেশের কিছু কিছু জায়গায় সয়াবিনের চাষ হচ্ছে।

আসুন জেনে নেই সয়াবিন এর পুষ্টিমান:

  • খাদ্য উপাদান জিরো %
  • খনিজ ও ভিটামিন %
  • প্রোটিন ৫১.৩১%
  • ক্যালসিয়াম ২৯৭.৭০%
  • কার্বোহাইড্রেট ১৮.৬৮%
  • আয়রন ১৫%
  • ফরম্যাট ১৬.৯৩%
  • ফসফরাস ৪৪০%
  • ফাইবার ৬.৬৪%
  • লেসিথিন ৫.৮ মিলিগ্রাম
  • মিনারেল ৪.৬%
  • ভিটামিন কে ১.২০ মিলিগ্রাম
  • ওমেগা -৩ ১.৭০৫%
  • ক্যালোরি ৪৩৮

সয়াবিন এর কার্যকারিতা:

  • মাসিকের সময় উচ্চ রক্তচাপ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।
  • Isoflavones রক্তের হরমোন লিপিড, কার্ডিওভাসকুলার ও হাইপোথাইরয়েডিজমের ঝুঁকি কমায়।
  • ফলিক অ্যাসিড বৃদ্ধি করে।
  • শরীরের যে কোন জায়গার টিউমার কমাতে সহায়তা করে।
  • লেকটিন লুনাসি গর্ভাশয়, স্তন, কোলন ক্যান্সারে অ্যান্টিভাইরাস তৈরি করে।
  • মূত্রনালীর সংক্রমণে, আভ্যন্তরীণ রক্ত ক্ষয়, প্রস্রাবের সাথে রক্ত ক্ষরণ, লিভার, জন্ডিস, গনোরিয়া, জ্বর, নিউমোনিয়া, ম্যালেরিয়া সহ বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে।
  • প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই, বি কমপ্লেক্স, পটাশিয়াম ও ফসফরাস রয়েছে।
  • ঠান্ডা ও ফ্লু এর ঝুঁকি কমায়।

সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে সয়া প্রোটিন গ্রহণ করুন। এই পণ্যটি পেতে যোগাযোগ করুন

প্রয়োজনীয় লেখাসমূহঃ

Leave a Comment

ten + 13 =